মিলটনের চাইল্ড অ্যান্ড ওল্ড এইজ কেয়ার

Published: 18 Sep 2022 View: 92

মিলটনের চাইল্ড অ্যান্ড ওল্ড এইজ কেয়ার || তানভীর তানিম || প্রকাশ : ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৪:১৭ || দৈনিক ইত্তেফাক 

একটা সময় জীবিকার তাগিদে মানবসেবার মতো মহৎ কাজকেই বেছে নিয়েছিলেন পেশা হিসেবে। এরপর একটু একটু করে যখন আর্থিক স্বচ্ছলতার স্পর্শ পেলেন, তখন পুরোদমে নেমে পড়লেন মানুষের সেবা ও ভরণপোষণের কাজে। গড়ে তুললেন চাইল্ড অ্যান্ড ওল্ড এইজ কেয়ার নামক ব্যক্তিগত প্রতিষ্ঠান। যার মাধ্যমে প্রতিনিয়ত ছিন্নমূল শিশু ও বয়স্কদের সেবা দিচ্ছেন। বলছিলাম মিলটন সমাদ্দারের কথা।



মিলটন সমাদ্দারের গ্রামের বাড়ি বরিশালের উজিরপুরের বৈরকাঠীতে। নিজে স্বল্পশিক্ষিত মানুষ হলেও মানুষের জন্য কিছু করবার তাড়না সবসময় তাড়া করেছে তাকে। তখন ২০১৪ সাল, মিলটনের মনে হলো, যাদের অঢেল অর্থ, সম্পদ আছে তারা ইচ্ছা করলে উন্নত চিকিৎসা বা সেবা গ্রহণ করতে পারে। কিন্তু রাস্তায় পরে থাকা অসহায়, পরিচয়হীন মানুষ যাদের অনেকের শরীর ঘা ও পচা-দুর্গন্ধযুক্ত; তারা অনাহারে বা বিনা চিকিৎসায় মৃত্যুবরণ করলেও দেখার কেউ নেই। সেসব মানুষের মধ্য থেকে অন্তত একজনকে সেবা করার উদ্দেশ্যে, আগারগাঁও থেকে একজন বৃদ্ধ বাবাকে নিজ বাসায় নিয়ে আসেন তিনি। কিন্তু পায়ে বড় আকারের পচন ও দুর্গন্ধ থাকায় নিজের ভাড়া বাসায় রাখা সম্ভব হচ্ছিলো না। ফলস্বরূপ, একটি টিনশেড ঘর ভাড়া করে আশ্রয়ের ব্যবস্থা করা হয় এবং দেখাশোনা করার জন্য প্রথম পর্যায়ে ২ জন লোককে নিয়োগ দেওয়া হয়। এভাবে ১ জন, ২ জন করে করে বয়স্ক মানুষের সংখ্যাটা যখন বৃদ্ধি পেতে থাকলো তখন চাইল্ড অ্যান্ড ওল্ড এইজ কেয়ার নামক বৃদ্ধাশ্রমকে প্রাতিষ্ঠানিকভাবে সচল করার সিদ্ধান্ত নেন মিলটন। 


এই প্রতিষ্ঠান ও নিজের মানবিক কাজের জন্য এবার তিনি পেয়েছেন শেখ হাসিনা ইয়্যুথ ভলান্টিয়ার অ্যাওয়ার্ড ২০২২। যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে আয়োজিত এ সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে জ্যেষ্ঠদের প্রতি আদর্শ সেবা কিংবা সমাজকল্যাণে অবদান ক্যাটাগরিতে তিনি এ অ্যাওয়ার্ড অর্জন করেন। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে ভার্চুয়ালি উপস্থিত ছিলেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। 

সরকারের সর্বোচ্চ পর্যায় থেকে স্বীকৃতি, তাই অ্যাওয়ার্ড প্রাপ্তিতে দারুণ খুশি মিলটন বলেন, 'আমার কার্যক্রমের সকল সফলতা, পুরষ্কার আমার শুভাকাঙ্খী, দেশের সমস্থ প্রশাসনিক কর্মকর্তা, মিডিয়া এবং সংবাদ মাধ্যমের সাথে জড়িত সকলের উদ্দেশ্যে উৎসর্গ করছি এবং সকলের কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।'


২০১৪ সাল থেকে এখন পর্যন্ত ১০৪৫ জন বৃদ্ধ-বৃদ্ধা, ৩৯৫ জন হারিয়ে যাওয়া শিশু এবং ৪০ জন প্রতিবন্ধী শিশুকে সেবার আওতায় আনা সম্ভব হয়েছে। নিজ প্রতিষ্ঠানের কার্যক্রম প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে মিলটন সমাদ্দার জানান, 'আমি মূলত রাস্তায় ছিন্নমূল অবস্থায় ছড়িয়েছিটিয়ে থাকা বৃদ্ধ-বৃদ্ধা ও অজ্ঞাত শিশুদের আশ্রয় প্রদান করে থাকি। অজ্ঞাত হারিয়ে যাওয়া শিশু ও বৃদ্ধদের পরিচয় খুঁজে পরিবারে ফিরিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করি। অধিকাংশ সময় তাদের খুঁজে পাওয়া গেলেও পরিবার নিতে অস্বীকৃতি জানায়। তবে হারিয়ে যাওয়া সুস্থ শিশুদের পরিবার খুঁজে পাওয়া খুবই সহজ হয়। প্রতিবন্ধী শিশুদের ক্ষেত্রে বিষয়টি কঠিন। বার্ধক্যজনিত কারণে এবং জটিল ও কঠিন রোগে আক্রান্ত ৪১৫ জন বৃদ্ধা-বৃদ্ধা অজ্ঞাত পরিচয়ে আমার আশ্রয়ে থেকে মৃত্যুবরণ করেন। যাদেরকে ধারণানুযায়ী স্ব-স্ব ধর্মানুসারে দাফন-কাফন ও সৎকার করেছি আমরা। একই সাথে অসহায় মানুষদের চিকিৎসা, শিক্ষা, মৃত ব্যক্তিদের দাফন-কাফন, দেশের বিভিন্ন দূর্যোগ, মহামারিসহ নানা ধরনের সমাজসেবামূলক কার্যক্রম করে আসছে মিলটনের চাইল্ড অ্যান্ড ওল্ড এইজ কেয়ার।'


ইত্তেফাক/এসটিএম


Watch Videos

আবাসন নির্মানকাজ সম্পন্ন করতে প্রয়োজন সহযোগিতা

28 Nov | Watch Video

যেখানে খালি হাতে ফিরেনা কেউ

28 Nov | Watch Video

প্রধান শিক্ষকের ঠাঁই হলো বৃদ্ধাশ্রমে

28 Nov | Watch Video

প্রতিবন্ধী শিশুদের আবাসন নির্মাণ প্রকল্প

28 Nov | Watch Video

আপনার ১০ টাকা দানে ভালো থাকবে এই অসহায় বৃদ্ধ বাবা মায়েরা

28 Nov | Watch Video

Most Read
© Child And Old Age Care 2015-2025
Creating Document, Do not close this window...